মেসির হারের দিনে রোনালদোর ড্র

0


Published : ২৩.০৩.২০১৯ ১২:৩৯ অপরাহ্ণ BdST

দীর্ঘ নয় মাস পর দলে ফিরেছেন লিওনেল মেসি। কিন্তু এ ফেরাটা তার জন্য সুখকর হলো না। দক্ষিণ আমেরিকার একমাত্র দেশ হিসেবে বিশ্বকাপ অংশ নিতে না পারা ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে ৩-১ গোলে হেরেছে আকাশী-নীল জার্সিধারী আর্জেন্টিনা।


আর্জেন্টাইন কোচ ম্যাচের আগেই ঘোষণা করেছিলেন ৩-৪-২-১ ফরমেশনে খেলবে আর্জেন্টিনা। সবার সামনে ইন্টার মিলানের লাউতারো মার্টিনেজ, তার পেছনে মেসির পাশে পিতি মার্টিনেজ। এ পরীক্ষায় মেসিরা সদলবলে ফেল করেছেন।

তবে দল হারলেও এতে মেসির কোনও দায় ছিল না। এদিন নিজের সর্বোচ্চটাই দিয়েছিলেন তিনি। বরং মার্টিনেজের সঙ্গে তার জুটি আর্জেন্টাইন সমর্থকদের মনে নতুন করে আশাবাদী করে তুলতে পারে। দলের একমাত্র গোলটি করেন লাউতারো মার্টিনেজ। পুরো ম্যাচে বিপক্ষ রক্ষণ ফাঁকি দিয়ে মার্টিনেজকে দিয়েছেন ডিফেন্সচেরা পাস।

ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে ২৪ বারের দেখায় ২১টি ম্যাচেই জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা। ২টি ম্যাচ ড্র করেছে। আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ভেনেজুয়েলার একমাত্র জয়টি এসেছে আট বছর আগে ২০১১ সালে।

শুক্রবার রাতে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের মাঠ ওয়ান্দা মেত্রোপলিতানোতে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে ভেনেজুয়েলার মুখোমুখি হয় দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। ভেনেজুয়েলার হয়ে সোলোমন রোনডন, জন মুরিলো ও জেসেফ মার্টিনেজ এবং আর্জেন্টিনার পক্ষে গোল করেন লাউতারো মার্টিনেজ।

ম্যাচের শুরুতেই দুর্বল ডিফেন্সের কারণে গোল খায় আর্জেন্টিনা। ম্যাচর ৬ষ্ঠ মিনিটে মাঝমাঠ থেকে সতীর্থের উঁচু করে বাড়ানো বল অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে ডান পায়ে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডান পায়ের ভলিতে জালে জড়ান সলোমন রনদন।

৪৪ মিনিটে ব্যবধান বাড়ায় ভেনেজুয়েলা। পেনাল্টি ডি-বক্সের বাম সাইড থেকে দারুণ এক শটে দলকে ২-০ গোলের লিড এনে দেন মিডফিল্ডার জন মুরিলো।

বিরতির পর এক গোল শোধ করে আর্জেন্টিনা। ৫৯তম মিনিটে নিজেদের অর্ধে বল পেয়ে মেসি খুঁজে নেন লা সোলসোকে। তার রক্ষণচেরা পাস খুঁজে নেয় মার্টিনেজকে। আর সেখান থেকেই ব্যবধান কমান মার্টিনেজ।

৭৫তম মিনিটে ভেনেজুয়েলার জয় নিশ্চিত করেন জোসেফ মার্টিনেজ। ডি-বক্সে ফরোয়ার্ড ডাউইনকে ডিফেন্ডার হুয়ান ফেইথ ফাউল করলে পেনাল্টি পায় ভেনেজুয়েলা। সেখান থেকে সফল স্পট কিকে ব্যবধান ৩-১ করেন মার্টিনেজ।

বলের দখল প্রতিপক্ষের চেয়ে দ্বিগুণ রেখেও তাই লাভ হয়নি আর্জেন্টিনার। হার দিয়েই জাতীয় দলে ফিরতে হলো মেসিকে।

আগামী ২৬ মার্চ আরেক প্রীতি ম্যাচে মরক্কোর মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা।

মাত্র ১৫ মিনিটের ব্যবধানে মাঠে নামের দশটি ব্যালন ডি’অর জয়ী দুই মহাতারকা লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। উভয়েরই ব্যালন ডি’অর সংখ্যা পাঁচটি করে। দু’জনই বিশ্বকাপ থেকে জাতীয় দল ছিটকে পড়ার পর অনেকটা ঘোষণা ছাড়াই অবসরে চলে যান এ দু’জন। কিন্তু আবার একই দিনে নিজ নিজ দেশের জার্সিতে ফেরত আসেন তারকাদ্বয়।

শুক্রবার রাত পৌনে দুইটার দিকে লিসবনে বেনফিকার মাঠে ২০২০ ইউরোর বাছাইপর্বে ইউক্রেনের বিপক্ষে মাঠে ফেরে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। কিন্তু তার ফেরাটা সুখকর হয়নি। গোলশূন্য ড্র নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় পর্তুগিজ তারকাকে।

যদি বলা হয় ম্যাচটি রোনালদোরা ইউক্রেনের বিপক্ষে না খেলে খেলেছে ইউক্রেনের গোলরক্ষক পিয়াতভের বিরুদ্ধে তাহলে ভুল হবে না।

কারণ পুরো ম্যাচ জুড়ে রোনালদো, সিলভাদের আক্রমণ ঠেকাতে ব্যতিব্যস্ত ছিলো ইউক্রেনের রক্ষণভাগ। যেখানে ১৮টি শট নিয়েছিল পর্তুগাল যার ৬টি ছিলো লক্ষ্য বরাবর। আর প্রত্যেকটিই ফেরত পাঠান পিয়াতভ।

শুধু রোনালদোকেই তিনবার গোলবঞ্চিত করেছেন পিয়াতভ। প্রথমার্ধে জুভেন্টাস তারকার শট দুবার ঠেকিয়ে দিয়েছেন। দ্বিতীয়ার্ধেও একটি হেড থেকে ইউক্রেনকে বাঁচিয়েছেন গোলরক্ষক।

আগামী সোমবার গ্রুপের মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে সার্বিয়ার মুখোমুখি হবে রোনালদোর পর্তুগাল।

 

আপনার মন্তব্য :

Please enter your comment!
Please enter your name here